লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: শনিবার সকালে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে এক গৃহবধূর লাশ রেখে পালিয়েছেন তার স্বামীসহ পরিবারের সদস্যরা।

নিহত গৃহবধূ জ্যোৎস্না বেগম সদর উপজেলার পিয়ারাপুর এলাকার সুজনের স্ত্রী।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. আনোয়ার হোসেন জানান, সকালে জ্যোৎস্না বেগমের লাশ জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন সুজন। পরে হাসপাতালে লাশ রেখে পালিয়ে যান তিনি।

এলাকাবাসির মতে, বিয়ের পর থেকে গৃহবধু জোসৎনা বেগম ও তার পরিবারকে যৌতুকের জন্য চাপ দেয় সুজনসহ পরিবারের সদস্যরা। এ নিয়ে তাকে প্রায় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হত। এক পর্যায়ের রাতে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য সকালে গলায় ফাঁস দেয়ার কথা বলে নিহতের লাশ সদর হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায় সুজন ও তার পরিবারের সদস্যরা।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. লোকমান হোসেন জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please follow and like us:
error