: পার্বতীপুর সংবাদদাতা

আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া একটি মালবাহী ট্রেন বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি রেলগেটে পৌছালে একটি কাভার্ট ভ্যন রেল ক্রসিং পার হওয়ার সময় এ গুর্ঘটনা ঘটে। কিছুক্ষন পর রেল লাইনে পড়ে থাকা দুর্ঘটনা কবলিত কাভার্ট ভ্যনটির সাথে আবারো খুলনাগামী সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়।পরে পার্বতীপুর-ঢাকা রুটে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।ঘটনার পর থেকে রেল ক্রসিং এর লাইনম্যন আজিজুল পলাতক রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শিরা জানায়- ভোড় সারে পাচঁ টায় একটি তেলবাহী ট্রেনের সাথে কাভার্ট ভ্যনের সংঘর্ষ হয়।এতে ঘটনা স্থলেই বিপ্লব(২৬) নামে কাভার্ড ভ্যনের শ্রমিক নিহত হয়। আহত হয় আবুল কালাম(৩১)।দুর্ঘটনার পর কাভার্ট ভ্যনটি বিকল হয়ে ট্রেন লাইনের উপর পরে থাকে।ভোড় পৌনে ছয় টায় সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেন আসলে পুনরায় সংঘর্ষ বাধে। প্রায় চার ঘন্টা অতিবাহিত হওয়ার পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।কাভার্ট ভ্যনটি মাল বোঝাই অবস্থায় নিলফামারী যাচ্ছিলো। নিহত বিপ্লব কাভার্ট ভ্যনের হেলপার নীলফামারি জেলা শহরের আজীজুল ইসলামের ছেলে। লাশ টি ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা আছে এবং আবুল কালাম আজাদ কে গুরুতর অবস্থায় একই মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন আছেন। তার বাড়িও রংপুর জেলায়।